ETF vs Mutual Fund: ETF-এ বিনিয়োগ মিউচুয়াল ফান্ডের থেকেও বেশি লাভজনক? জেনে নিন এই বিনিয়োগের উপকারিতাগুলি

Gourav Mondal

Published on:

etf-vs-mutual-fund-which-is-better-etf-or-mutual-fund

নিজের ভবিষ্যৎকে আর্থিক ভাবে সুরক্ষিত করতে সাধারণ মানুষ বিভিন্ন ধরনের বিনিয়োগের স্কিম বেছে নেন (ETF vs Mutual Fund)। বিগত কয়েক বছর ধরে বিনিয়োগকারীদের পছন্দের একটি বিনিয়োগ অপশন হয়ে উঠেছে মিউচুয়াল ফান্ডগুলি (Mutual Fund)।

মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে কিছুটা ঝুঁকি থাকলেও এর মাধ্যমে চড়া সুদের হারে রিটার্ন পাওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি থাকে। তবে বর্তমানে বিনিয়োগকারীদের কাছে আরো একটি পছন্দের স্কিম হল ETF। এই ETF এর মাধ্যমে বিগত কয়েক বছর ধরে বিনিয়োগকারীরা বিপুল পরিমাণ লাভ করেছেন। আজ এই প্রতিবেদনের মাধ্যমে আপনিও জেনে নিন ETF কি এবং বিনিয়োগের ক্ষেত্রে এর উপকারিতা গুলি সম্পর্কে। 

এক্সচেঞ্জ ট্রেডেড ফান্ড কী (What is Exchange Traded Fund)?

অর্থ বিনিয়োগের ক্ষেত্রে একটি অন্যতম সেরা বিকল্প হল ইটিএফ। ETF কে আসলে বলা হয় এক্সচেঞ্জ ট্রেডেড ফান্ড (Exchange Traded Fund)। এর মাধ্যমে শেয়ার বাজারের একটি নির্দিষ্ট সেটে বিনিয়োগ করা হয়। ইটিএফ সাধারণত একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ সূচক ট্র্যাক করে। শেয়ার বাজারের স্টক এক্সচেঞ্জ কেনা এবং বিক্রি করার ক্ষেত্রে ETF কার্যকরী হয়। ETF থেকে রিটার্নের পরিমাণ অনেক বেশি হওয়ার কারণে বিগত কয়েক বছর ধরে এর প্রতি বিনিয়োগকারীরা অত্যন্ত আকর্ষিত হয়েছেন। গত এক বছরে কিছু ইএফটি আবার গ্রাহকদের ১০০ শতাংশ রিটার্ন দিয়েছে।

EFT-র মাধ্যমে ইনডেক্স, কমোডিটি  এবং বন্ডে বিনিয়োগ করা হয়। Amfi-এর মতে ETF আসলে এমন একটি ফান্ড যার মাধ্যমে CNX নিফটি বা BSE সেনসেক্সের মতো সূচক গুলিকে ট্র্যাক করা সম্ভব হয়। প্রতিটি ইএফটির ক্ষেত্রে আবার ফান্ড ম্যানেজার থাকে, যাতে অর্থ বিনিয়োগকারী ব্যক্তিকে ফান্ড কিনতে বা বিক্রি করতে না হয়।

মিউচুয়াল ফান্ডের তুলনায় কেন EFT উপকারী?

বেশ কয়েকটি বিশেষ কারণের জন্য মিউচুয়াল ফান্ডের তুলনায় গ্রাহকরা ইএফটি-কে বেশি পছন্দ করেন (ETF vs Mutual Fund)। মিউচুয়াল ফান্ডের তুলনায় ইএফটি বেশি উপকারী হওয়ার কারণ গুলি হল-

  • শেয়ার ক্রয় বিক্রয়ের মত একই পদ্ধতিতে ইএফটি ক্রয় বিক্রয় করা যায়। 
  • ইএফটির মাধ্যমে বিভিন্ন খাতে বিনিয়োগ করা সম্ভব হয়। 
  • ইএফটি থেকে পাওয়া লাভের পরিমাণ এর উপর গ্রাহককে কোন কর দিতে হয় না।
  • মিউচুয়াল ফান্ডের তুলনায় ইএফটি-তে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে ব্যয়ের পরিমাণ কম।
  • স্টক মার্কেটে ট্রেড করার সময় ইএফটির উপর নজর রাখা যেতে পারে। এর ফলে বিনিয়োগ প্রক্রিয়া আরও স্বচ্ছ হয়। 

ETF বিনিয়োগের বিভিন্ন অপশন

গ্রাহকরা নিজেদের ঝুঁকি অনুযায়ী পরিস্থিতি বিচার করে ইএফটির বিনিয়োগ অপশনগুলি বেছে নিতে পারেন। এক্ষেত্রে যে অপশনগুলি পাওয়া যায় সেগুলি হল-

১) বন্ড ETF: বন্ড ইটিএফ তে বিনিয়োগ করে বিনিয়োগকারীরা মাসিক আয়ের সুবিধা পান।এক্ষেত্রে সরকার, কর্পোরেট এবং মিউনিসিপ্যাল বন্ড ইত্যাদিতে বিনিয়োগ করা যেতে পারে।

২) মুদ্রা ভিত্তিক ETF: কারেন্সি পেয়ারিং-এর কর্মক্ষমতার ভিত্তিতে যে সমস্ত বিনিয়োগগুলি হয় সেগুলিকে কারেন্সি ETF বলা হয়। কারেন্সি ইটিএফ-কে দেশের রাজনৈতিক এবং অর্থনৈতিক প্রবণতার মুদ্রা মূল্য নির্ধারণ করতে ব্যবহার করা হয়।

৩) ইউনিভার্স ETF: ইকুইটি গুলিকে ছোট করে ড্রপ থেকে লাভ করার জন্য ইউনিভার্স ETF করা হয়।

৪) স্টক ভিত্তিক ETF: স্টক ভিত্তিক ETF-এর ক্ষেত্রে একটি ETF-এর মধ্যে অনেক ধরনের স্টক থাকে। এই সমস্ত স্টক গুলির কার্যক্ষমতা অনুযায়ী বিনিয়োগকারীরা রিটার্ন পান। 

৫) কমোডিটি ETF: গোল্ড এটিএফ বিনিয়োগকারীদের কাছে এটি অত্যন্ত জনপ্রিয়। অপরিশোধিত তেল বা সোনার মত দামী দ্রব্য গুলি এর মাধ্যমে বিনিয়োগ করা হয়।